টিকা নিলে স্কুলে পরতে হবে না মাস্ক, যুক্তরাষ্ট্রে নতুন নির্দেশনা

কোভিড টিকা নেওয়া শিক্ষক এবং ছাত্রদের আর স্কুলে মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই। এমনই নির্দেশিকা আমেরিকার আমেরিকার ‘রোগ নিয়ন্ত্রণ ও নিরাময় সংস্থা’ (‘সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন’ বা সিডিসি)-র।  শুক্রবারের ওই নির্দেশিকায় টিকাকরণের পর কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে তা বলা হয়েছে। সেখানেই রয়েছে গত দু’বছরের কোভিড বিধি শিথিলের ওই দাওয়াই।
আমেরিকায় ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে ১২ বছর এবং তাঁর বেশি বয়সি শিশু ও কিশোরদের করোনা টিকা কর্মসূচি। চলছে পুরোদম প্রচারও। সেই আবহে নয়া নির্দেশিকা প্রকাশ করে সিডিসি জানিয়েছে, ‘যে সব পড়ুয়া এবং শিক্ষকদের কোভিড-১৯ টিকা নেওয়ার কাজ শেষ হয়েছে, তাঁদের আর স্কুল চত্বরে মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই’।

আমেরিকায় কোভিড সুরক্ষার বিষয়ে দায়িত্বপ্রাপ্ত সিডিসি-র টাস্ক ফোর্সের প্রধান ইরিন সোবার স্ক্যাজ করোনাভাইরাস সংক্রমণ এবং মৃত্যুর সংখ্যা উল্লেখযোগ্য কমার কথা জানিয়ে বলেছেন, ‘‘অতিমারি পরিস্থিতি এক নতুন সন্ধিক্ষণে এসে পৌঁছেছে। তাই এ সংক্রান্ত নির্দেশিকা পরিবর্তন করেছি আমরা।’’
যদিও কোনও স্কুল কর্তৃপক্ষকে শিক্ষক ও পড়ুয়াদের জন্য টিকাকরণের ব্যবস্থা করার পরামর্শ দেয়নি সিডিসি। কী ভাবে টিকা নেওয়া এবং না-নেওয়া শিশুদের চিহ্নিত করে পৃথক ভাবে নিয়ন্ত্রণ করতে হবে, সে বিষয়েও কিছু বলা হয়নি। প্রসঙ্গত গত এপ্রিল সিডিসি-র কোভিড নির্দেশিকায় বলা হয়েছিল, যতদিন না দেশের ৭০ থেকে ৮৫ শতাংশ মানুষের টিকাকরণ না হচ্ছে, ‘হার্ড ইমিউনিটি’ অর্জিত না হচ্ছে, তত দিন মাস্ক পরার মতো সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। এরপর আরেকটি নির্দেশিকায় সিডিসি জানায়, যাঁদের দু’টি করোনা টিকা নেওয়া হয়ে গিয়েছে, তাঁরা মাস্ক ছাড়াও রাস্তায় বেরোতে পারবেন।