গুয়েতেমালা ও মেক্সিকো সফরে যাচ্ছেন কমলা হ্যারিস

মার্কিন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস আগামী সপ্তাহে গুয়েতেমালা ও মেক্সিকো সফরে যাচ্ছেন। এ সফরের মধ্য দিয়ে তিনি কোভিড-১৯ এ পীড়িত ও যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসীর মূল উৎস ওই অঞ্চলে আশার বার্তা ছড়িয়ে দেবেন বলে মনে করা হচ্ছে।
প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের ডেপুটি হিসেবে দায়িত্ব নেওয়ার পর কমলা হ্যারিসের এটি প্রথম বিদেশ সফর।

মার্চে বাইডেন এ অঞ্চল থেকে অভিবাসনের মূল কারনের দিকে নজর দিতে কূটনৈতিক প্রচেষ্টার দায়িত্ব তাকে দেয়ার পর তিনি বলেছেন, জনগণের মাঝে আমাদেরকে আশার সঞ্চার করতে হবে। তাদের বোঝাতে হবে তারা নিজ দেশে থেকে গেলে পরিস্থিতি আরও ভালো হবে।
তার রবিবার গুয়েতেমালা যাওয়ার কথা রয়েছে। সেখানে তিনি সোমবার প্রেসিডেন্ট আলেজান্দ্রো গিয়ামাতেই’র সাথে দেখা করবেন। এরপর মঙ্গলবার তিনি মেক্সিকান প্রেসিডেন্ট আন্দ্রেস ম্যানুয়েল লোপেজ ওবারদরের সাথে সাক্ষাত করবেন। এছাড়া তিনি কমিউনিটি, শ্রমিক ও ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দের সাথেও আলোচনায় বসবেন বলে জানা গেছে।
হ্যারিস বলছেন, তিনি আশা করছেন দুর্নীতি, অপরাধ ও সহিংসতা নিয়ে খোলামেলা আলোচনা হবে।
উল্লেখ্য জানুয়ারিতে বাইডেন দায়িত্ব নেয়ার পর মেক্্িরকান সীমান্তে অভিবাসীদের ভিড় বাড়তে শুরু করে। এপ্রিলে গত ১৫ বছরের মধ্যে রেকর্ড সংখ্যক লোক যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের চেষ্টা করে। এ সংখ্যা প্রায় এক লাখ ৮০ হাজার। এর ৮০ শতাংশেরও বেশি এসেছে মেক্সিকো অথবা গুয়েতেমালা, হন্ডুরাস ও এল সাল ভাদর থেকে।
এদিকে হ্যারিস সফরকালে এসব অঞ্চলে করোনা মোকাবেলায় যুক্তরাষ্ট্রের টিকা সরবরাহ নিয়েও আলোচনা করবেন। সফরের আগেই এ নিয়ে তিনি নেতৃবৃন্দের সাথে টেলিফোনে কথা বলেছেন।
বাইডেনের আরও বেশি মানবিক অভিবাসন নীতির অঙ্গীকার পূরণের অংশ হিসেবেই কমলা হ্যারিসের সফরটি অনুষ্ঠিত হচ্ছে। তবে হ্যারিসকে অনেক বেশি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তে হবে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।