জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করলো আফগানিস্তান

নাজিবুল্লাহ জাদরানের ৭২ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে আগে ব্যাট করতে নেমে ১৮৩ রানের বড় সংগ্রহ পেয়েছিল আফগানিস্তান। এরপর বল হাতে দাপট দেখিয়েছে আফগান বোলাররা। ৪৭ রানের জয়ের দিনে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজে জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করলো আফগানিস্তান।
জয়ের জন্য ১৮৪ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে শুরু থেকেই ধুঁকতে থাকে জিম্বাবুয়ের ব্যাটসম্যানরা। ইনিংসের প্রথম ওভারেই সাজঘরে ফেরেন তিনাশে কামুনহুকাম্বে। ৪ বলে ১ রান করে ফজল হকের বলে বোল্ড হন তিনি। তারিশাই মুসাকান্দাকে নিয়ে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন শন উইলিয়ামস।

যদিও জুটি বড় করতে পারেননি তারা। ১১ বলে ১৪ রান করে উইলিয়ামস ফিরলে ভাঙে তাঁদের দুজনের ৩৭ রানের জুটি। চলতি সিরিজে প্রথমবারের মতো সুযোগ পেলেও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি মিল্টন শুম্বা। করিম জানাতের বলে ৮ রান করে ফিরেছেন তিনি।
প্রথম দুই ম্যাচে খুব বেশি ভালো করতে না পারলেও এদিন ২৯ বলে অপরাজিত ৪১ রানের ইনিংস খেলেন সিকান্দার রাজা। এ ছাড়া ৩১ বলে ৩৯ রানের ইনিংস খেলেছেন রায়ান বার্ল। তবে তাতেও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি তারা। হাতে উইকেট থাকলেও শেষ পর্যন্ত জিম্বাবুয়ে থামে ১৩৬ রানে।
এর আগে টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে দলকে ভালো শুরু এনে দেন রহমানুল্লাহ গুরবাজ ও উসমান গনি। ২১ বলে ১৮ রান করে গুরবাজ ফিরলে ভাঙে তাঁদের এই জুটি। করিম ২১ রানে ফেরার পর গনিও ফিরেছেন ৩৯ রান করে। এরপর ব্যাট হাতে ঝড় তুলেন জাদরান। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যানের ৩৫ বলে অপরাজিত ৭২ রানের ইনিংসের সুবাদে ১৮৩ রানের সংগ্রহ পায় তারা।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
আফগানিস্তান: ১৮৩/৭ (ওভার ২০) (জাদরান ৭২*, গনি ৩৯, করিম ২১, নাগারভা ২/৩৫)
জিম্বাবুয়ে: ১৩৬/৫ (ওভার ২০) (রাজা ৪১*, বার্ল ৩৯*, মুসাকান্দা ৩০, করিম ২/৩৪)