‘৪ বছর পর দেখে নেব’, ফের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লড়ার ইঙ্গিত ট্রাম্পের

ভাঙব তবু মচকাবো না। এমনই দশা হয়েছে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের। বুধবারের ‘সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ’ ৪৬ মিনিটের ভাষণে ঘুরিয়ে ফিরিয়ে নির্বাচনে কারচুপির অভিযোগে তুললেন। একইসঙ্গে হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন, ‘৪ বছর পর তোমাদের দেখে নেব।’ অর্থাৎ ফের নির্বাচনে লড়ার ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন তিনি।
আমেরিকার স্থানীয় সময় বুধবার হোয়াইট হাউসের ডিপ্লোম্যাটিক রুম থেকে বক্তব্য রাখেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এবার আর কোনও সংবাদমাধ্যমের সামনে নয়। স্রেফ সোশ্যাল মিডিয়ায় সম্প্রচারিত হল তাঁর ভাষণ। বক্তব্যের নির্যায় সেই ‘থোড় বড়ি খাড়া. আর খাড়া বড়ি থোড়’।

হার এখনও মেনে নেননি। বরং একের পর এক আদালতের চক্কর কাটছেন ট্রাম্পের আইনজীবীরা। মঙ্গলবার হোয়াইট হাউসে ক্রিসমাস পার্টি ছিল। তবে সেখানে কার্যত নিজের হার মেনে নিয়েছিলেন ট্রাম্প। উপস্থিত অতিথিদের উদ্দেশে বলেছিলেন, “দারুন ছিল গত চার বছর। আরও চার বছরের জন্য চেষ্টা চালাচ্ছি। যদি না হয়, চার বছর পর আবার দেখা হবে।” চার বছর পর বিরোধীদের কার্যত দেখে নেওয়ার হুঁশিয়ারি দেন তিনি।
একই সুর শোনা যায় বুধবারের ৪৬ মিনিটের লম্বা ভাষণে। যেখানে বারবার নির্বাচনে কারচুপি নিয়ে অভিযোগ তোলেন তিনি। আমেরিকার বিদায়ী প্রেসিডেন্টের কথায়, “গত চার বছরের মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখছি। সকলেই জানেন নির্বাচনে কীভাবে কারচুপি হয়েছে। গণনায় প্রথম থেকে আমি এগিয়ে ছিলাম, হঠাৎ করে হেরে গেলাম। এটা হয় না। আমাদের কাছে অনেক প্রমাণ আছে।” এ প্রসঙ্গে উল্লেখ্য, মঙ্গলবারই হোয়াইট হাউসের পদস্থ আধিকারিক জানিয়ে দেন, নির্বাচনে কোনও কারচুপির প্রমাণ পায়নি বিচার বিভাগ। এরপরেও নিজের হার স্বীকার করতে মোটেও রাজি নন ট্রাম্প। বরং ২০২৪ সালের নির্বাচনে ফের লড়াই করার ইঙ্গিত দিয়ে রাখলেন তিনি।