রাজনীতি

  • হোম
  • বিস্তারিত খবর
উন্নয়নের জন্য পরিবর্তন চাই- দিলীপ আগরওয়ালা
অ্যাডমিন / ০২-০১-২০২৪

উন্নয়নের জন্য পরিবর্তন চাই- দিলীপ আগরওয়ালা

চুয়াডাঙ্গা -১ আসনে নির্বাচনী প্রচারনায় সাড়া ফেলে দিয়েছেন ঈগল প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী এবং আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় শিল্প ও বাণিজ্য বিষয়ক উপকমিটির সদস্য দিলীপ কুমার আগরওয়ালা। নির্বাচনের তারিখ যত এগিয়ে আসছে ততো ঈগল প্রতীকের পক্ষে জনসমাগম বাড়ছে বলে জানা গেছে। নির্বাচনী আসনটির সর্বত্র বিরামহীন প্রচারনা চালিয়ে যাচ্ছেন দিলীপ কুমার আগরওয়ালা ও তার কর্মী-সমর্থকরা। এর ধারাবাহিকতায় আজ সোমবার আলমডাঙ্গার এটিম মাঠে ৫২ বছর পর সর্বকালের শ্রেষ্ঠ জনসভা ঈগল প্রতীকের অনুষ্ঠিত হয়েছে।  
 
উপজেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা অন্তত অর্ধলক্ষাধিক মানুষ এই সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন। সেখানে দুর্নীতিমুক্ত চুয়াডাঙ্গা গড়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন দিলীপ কুমার। তিনি উন্নয়নের জন্য পরিবর্তন চান। সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে হাসপাতালবিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার পাশাপাশি তিনি জেলার সার্বিক উন্নয়নের প্রতিশ্রুতি দেন। সমাবেশে উপস্থিত হাজার হাজার মানুষ এসময় ঈগল প্রতীকের স্লোগানে মুখর করে তোলেন। 
 
গতকাল  বেলা ২ টার পর থেকে সমাবেশ মঞ্চ নেতা-কর্মীতে পরিপূর্ণ হতে থাকে। উপজেলা আওয়ামী লীগপৌর মেয়রউপজেলা যুবলীগকৃষক লীগযুব মহিলা লীগউপজেলা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীদের বড় অংশই এই জনসভায় অংশ নেন। চুয়াডাঙ্গা সদর ও আলমডাঙ্গা উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে হাজার হাজার নারী-পুরুষ দলে দলে মিছিল নিয়ে আসেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই বিশাল মাঠ কানায় কানায় পরিপূর্ণ হয়ে যায়। তারা ঈগল প্রতীকের ব্যানারফেস্টুন নিয়ে মিছিল দিয়ে এলাকা প্রকম্পিত করে তোলেন।  
 
আলমডাঙ্গা পৌরসভার মেয়র হাসান কাদির গনু মিয়ার সভাপতিত্বে জনসভায় নির্বাচনী আসনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা বক্তব্য দেন। তারা তাদের বক্তব্যে বিগত আমলে উন্নয়ন ও সুশাসন নিয়ে আক্ষেপ প্রকাশ করেন। তারা আশা করেন ঈগল প্রতীকের প্রার্থী দিলীপ আগরওয়ালা বিজয়ী হলে স্মার্ট চুয়াডাঙ্গা গড়ে উঠবে। সৃষ্টি হবে নতুন নতুন কর্মসংস্থান।  
 
জনসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে দিলীপ কুমার আগরওয়ালা বলেনচুয়াডাঙ্গাবাসী আজ পরিবর্তন চায়। তারা আর কোন নির্দিষ্ট পরিবারের গন্ডিতে আটকে থাকতে চায় না। কারণ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশে উন্নয়ন হলেও চুয়াডাঙ্গা-১ আসনে তার সুফল আসেনি। তাই আমি বিজয়ী হলে এই জেলাকে স্মার্ট চুয়াডাঙ্গায় রূপ দেব।