জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাস, দুর্নীতির কবল থেকে সমাজকে রক্ষা করতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষার পাশাপাশি শান্তি বজায় রাখা, জঙ্গীবাদ, সন্ত্রাস, দুর্নীতি ও মাদকের হাত থেকে সমাজকে রক্ষা করতে সশস্ত্র বাহিনীর সহযোগিতা চাইলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
বৃহস্পতিবার (১২ নভেম্বর) সকালে, ডিজিএফআই-তে কর্মরত অফিসার এবং অন্যান্য পদবির সদস্যদের জন্য নব নির্মিত বাসস্থানের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে এ সব কথা বলেন তিনি। গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি ডিজিএফআই অফিসার্স মেস ঢাকা ক্যান্টনমেন্টে যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন তিনি।

গোয়েন্দা সংস্থা ডিজিএফআই-এর কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের জন্য আবাসন প্রকল্প ছাড়াও বিভিন্ন স্থাপনার উদ্বোধন করে সরকার প্রধান বলেন, যুব সমাজকে রক্ষা করতে পারলেই দেশের উন্নয়নে তাদের মেধা কাজে লাগানো যাবে। সততা, নিষ্ঠার সঙ্গে দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে দেশের প্রতি মানুষের প্রতি কর্তব্য পালন করবেন, সেটিই আমাদের কামনা, আপনারা সেটিই করবেন। দেশের ইতিহাসটা জানতে হবে, দেশকে জানতে হবে, দেশকে ভালোবাসতে হবে, দেশের জন্য কাজ করতে হবে।
দেশের প্রতি, দেশের সাধারণ মানুষের প্রতি কর্তব্য পালনে সততা, নিষ্ঠার পরিচয় দেয়ার নির্দেশনাও দেন সরকার প্রধান।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা কিন্তু একদিকে যুদ্ধবিধস্ত দেশ গড়ে তুলছিলেন। অপরদিকে এই সশস্ত্র বাহিনীকেও যথাযথভাবে তিনি গড়ে তুলেছেন এবং তার যে ভবিষ্যৎবাণীগুলো; তিনি যে আমাদের একটা নীতিমালা দিয়ে গেছেন প্রতিরক্ষা নীতিমালা, আওয়ামী লীগ সরকারে আসার পর থেকে সেটি মেনেই আমরা কিন্তু দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি।
তিনি আরও বলেন, দেশের সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করতে হবে। যেটি আমি আমার বাবার কাছ থেকে, মায়ের কাছ থেকে শিখেছি। সেটিই আমি সবসময় চাই। দেশের প্রতি যদি ভালোবাসা না থাকে, যদি মানুষের দায়িত্ববোধ-কর্তব্যবোধ না থাকলে তাহলে যে কোনো দায়িত্ব সুষ্ঠুভাবে পালন করা যায় না।